হুজুর শিক্ষকের মারধরে মাদরাসা ছাত্রের মৃত্যুর

কুমিল্লার বরুড়ায় শিক্ষকের মারধরে এক মাদরাসাছাত্রের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। ওই ছাত্রের নাম মো. সিহাব।

সে উপজেলার ঝলম ইউনিয়নের শশইয়া গ্রামের ডিলার বাড়ির শুকুর আলী ডিলারের ছেলে। সিহাব উপজেলার ঝলম ইউনিয়নের মেড্ডা আল মাতিনিয়া নূরানী মাদরাসার ছাত্র।

মারধরের কয়েকদিন পর শুক্রবার কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। নিহত সিহাব মাদরাসার ওই শিক্ষক আব্দুর রবের তত্ত্বাবধানে নূরানী শিক্ষা গ্রহণ করছিল।

নিহত সিহাবের ভাবি সাবিকুন নাহার ঝুমুর জানান, সিহাবকে কয়েকদিন আগে মেড্ডা মাদরাসার শিক্ষক আব্দুর রব কোনো কারণে বেতের আঘাত করেন। এ সময় সিহাব অসুস্থ হয়ে পড়লে শিক্ষকরা তাকে ওষুধ এনে খাওয়ান। তাতেও সে সুস্থ না হওয়ায় বৃহস্পতিবার মাদরাসা থেকে সিহাবের অসুস্থতার খবর জানানো হয়। আমার শ্বশুর মাদরাসায় গিয়ে তাকে বাড়িতে নিয়ে আসেন।

তিনি আরো জানান, সিহাবের অবস্থা খারাপ হওয়ায় শুক্রবার সকালে তাকে বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। হাসপাতালে নেয়ার আগে দুপুর ১টার সময় সিহাবের মৃত্যু হয়।

অভিযুক্ত শিক্ষক আব্দুর রবের বক্তব্য নেয়ার জন্য মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

মেড্ডা আল মাতিনিয়া নূরানী মাদরাসার মুহতামিম (প্রধান) মাওলানা আহমেদ শফি জানান, আমি তার পরিবারের সঙ্গে কথা বলছি। পরে আপনাদের সঙ্গে কথা হবে। এই কথা বলে তিনি কল কেটে দেন।

ঝলম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নরুল ইসলাম বলেন, আমি স্থানীয় মেম্বারের কাছে শুনেছি মাদরাসার একজন শিক্ষক তাকে প্লেট দিয়ে আঘাত করেছে। মাদরাসায় খোঁজ নিয়ে শুনেছি- এমন কিছুই, তবে সিরিয়াস কিছু হয়নি। মাদরাসা কমিটির সঙ্গে কথা বলে দেখি কী করা যায়।

বরুড়া থানার ওসি ইকবাল বাহার মজুমদার বলেন, ঘটনা শুনেছি। এখনো কোনো অভিযোগ পাইনি। ঘটনাস্থলে গিয়ে বিস্তারিত জানাতে পারবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published.