পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সন্ত্রাসী রিপন নিহত -ভোরের টেকনাফ

ভোরের টেকনাফ ডেস্ক::

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় পুলিশের সাথে কথিত বন্দুকযুদ্ধে কুখ্যাত সন্ত্রাসী রিপন মোল্লা (৩১) নিহত হয়েছেন। আজ রোববার ভোরের দিকে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আগ্নেয়াস্ত্র ও দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় ছয় পুলিশ সদস্য আহত হয় বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

নিহত রিপন মোল্লা মাদারীপুর জেলার রাজৈর উপজেলার পূর্ব স্বরমঙ্গল গ্রামের (হৃদয়মঙ্গল গুচ্ছগ্রাম) এলেন মোল্লা ওরফে এরেন মোল্লার ছেলে। তিনি নবাবগঞ্জের সাম্প্রতিক জোড়া খুৃনের মামলার আসামি। তার বিরুদ্ধে কেরাণীগঞ্জ, নবাবগঞ্জ ও রাজৈরসহ বিভিন্ন থানায় দুইটি হত্যা, পাঁচটি ডাকাতি, একটি অস্ত্র মামলাসহ ১৩টি মামলা রয়েছে।

আজ দুপুর ১২টার দিকে নবাবগঞ্জ থানার ওসি মোস্তফা কামাল লিখিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সংবাদকর্মীদের এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শনিবার ঢাকার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জের শুভাঢ্যা চিতাখোলা এলাকায় অভিযান চালিয়ে রিপন মোল্লাকে গ্রেফতার করা হয়।

শনিবার রাত দেড়টার দিকে রিপন মোল্লাকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারে বের হয় পুলিশ। পথে মাঝিরকান্দা-মহব্বতপুর সড়কের ডাঙ্গারচক এলাকায় ওঁৎ পেতে থাকা রিপন মোল্লার ৭/৮জন সহযোগী তাকে ছিনিয়ে নিতে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়ে। এসময় রিপন মোল্লা সহযোগীদের গুলিতে আহত হয়ে রাস্তায় পড়ে থাকে। পুলিশ ভোরের দিকে রিপন মোল্লাকে নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় পুলিশের উপ-পরিদর্শক আবুল হোসেন, কাজী নাসের, এএসআই মিজানুর রহমান প্রধান, কনস্টেবল সেলিম রেজা, আ: রহমান, ড্রাইভার নোমান আহত হয়। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশী রিভরবার, ৩ রাউন্ড গুলিসহ ধালালো অস্ত্র উদ্ধার করেছে বলে লিখিতভাবে জানানো হয়।

অন্যদিকে, নবাবগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো: সাইফুল ইসলাম সংবাদকর্মীদের জানান, রিপন মোল্লা গত ২৩ মে’র জোড়া খুনের মামলার অন্যতম আসামি ছিল। ওই মামলার ১২ জন আসামির আটজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদের তিনজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

📜সংবাদটি লাইক এবং শেয়ার করুন।

শেয়ার করুন !

Daily Vorer Teknaf

সুন্দর আগামী বিনিমার্ণ বাস্তবায়নে এটি একটি অঙ্গীকারবদ্ধ অনলাইন সংবাদ মাধ্যম। 'দৈনিক ভোরের টেকনাফ' সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য প্রিয় পাঠকদের প্রতি অনুরোধ করা হল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *