গাড়ি ভাঙচুর: বিএনপির ৫০০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

ভোরের টেকনাফ ডেস্ক:: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সুপ্রিম কোর্টের সামনের গাড়ি ভাঙচুর ও পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় দলটির অজ্ঞাত ৫০০ নেতাকর্মীর নামে মামলা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে পুলিশ বাদী হয়ে শাহবাগ থানায় এ মামলা করে। যার মামলা নং ৩২।

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান বিএনপির ৫শ নেতাকর্মীর নামে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার সকালে প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে মুক্তিযোদ্ধা দলের একটি অনুষ্ঠান ছিল। বিএনপি স্থায়ী কমিটির সমস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের সেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা ছিল। কিন্তু হাইকোর্টে নিজের ব্যস্ততার কথা জানিয়ে ওই অনুষ্ঠানে যাননি এই আইনজীবী।

এ অবস্থায় জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের নেতাকর্মীরা দ্রুত অনুষ্ঠান শেষ করে মিছিল বের করেন। বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান ও শওকত মাহমুদ, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, নির্বাহী কমিটির সদস্য শাহ মোহাম্মদ আবু জাফর, ইশতিয়াক আজিজ উলফাত, সাদেক আহমেদ খানসহ শতাধিক নেতাকর্মী বিক্ষোভে অংশ নেন।

এরপর বেলা ১টার দিকে তারা প্রেসক্লাব এলাকা থেকে মিছিল বের করার সময় পুলিশ এক দফা বাধা দেয়। কিন্তু পুলিশের সংখ্যা কম থাকায় বাধা উপেক্ষা করে তারা হাইকোর্টের মোড়ে অবস্থান নেন। এই পরিস্থিতিতে প্রেসক্লাব থেকে মৎস্যভবনের দিকে আসার রাস্তায় প্রায় এক ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে। ফলে আশপাশের সড়কে ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়।

বিক্ষোভকারী বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করে এবং রাস্তায় আগুন জ্বালিয়ে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে স্লোগান দেন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান। পরে আরও পুলিশ সেখানে উপস্থিত হলে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। বিক্ষোভকারীরা ঢিল ছুড়লে মৎস্য ভবনের দিকে পুলিশ টিয়ার শেল ছোড়ে। এ সময় বিক্ষোভকারীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়।

এরপর বেলা আড়াইটার দিকে যানজট কমে এলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করে বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তারা।


📕সংবাদটি লাইক এবং শেয়ার করুন।

শেয়ার করুন !

Daily Vorer Teknaf

সুন্দর আগামী বিনিমার্ণে একটি অঙ্গীকারবদ্ধ সংবাদ মাধ্যম...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!