করোনা ভ্যাকসিন তৈরিতে নেতৃত্বের জন্য মুসলিম বিজ্ঞানীকে নির্বাচিত করলেন ট্রাম্প

ভোরের টেকনাফ ডেস্ক::

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মরক্কোর বংশোদ্ভূত মুসলিম আমেরিকান,বিজ্ঞানী মুনসেফ মোহাম্মদ স্লাউইকে ‘অপারেশন ওয়ার্প স্পিড’ নামক একটি কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন প্রোগ্রামের নেতৃত্বদানকারী দলেন প্রধান হিসেবে নির্বাচন করেছেন । এই ভ্যাকসিন প্রোগ্রামের নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য প্রধান বিজ্ঞানী কোনো বেতনও নেবেন না।–দ্য সিয়াসাত ডেইলি, এপি, আরব নিউজ,

গত শুক্রবার বিকেলে হোয়াইট হাউজের এক নিউজ ব্রিফিংয়ে এই নিয়োগের ঘোষণা দিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প স্লাউইকে ভ্যাকসিন উৎপাদনের ক্ষেত্রে বিশ্বের সবচেয়ে সম্মানিত ব্যক্তি এবং সত্য ভ্যাকসিন গঠনের বিষয়ে বর্ণনা করেছিলেন।

তিনি আরও বলেন, ‘অপারেশন ওয়ার্প স্পিডের প্রধান বিজ্ঞানী হবেন বিশ্বখ্যাত ইমিউনোলজিস্ট ডঃ মনসিফ স্লাওই, তিনি বেসরকারী খাতে তাঁর সময়কালে, ১০ বছরে, ১৪ টি নতুন ভ্যাকসিন তৈরি করতে সক্ষম হয়েছিলেন, যা আমাদের নতুন ভ্যাকসিন তৈরিতে অনেক বেশি আশাব্যঞ্জক।স্যালুই কোনও বেতন নেবে না:
আরব নিউজের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ডঃ মোনসেফ স্লাউইকে এমন একটি দল সাহায্য করবে, যার মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেনা ম্যাটারিয়েল কমান্ডের কমান্ডার আর্মি জেনারেল গুস্তাভ পারনা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব মারাত্মক করোনাভাইরাসের একটি ভ্যাকসিন তৈরি করতে সক্ষম করবেন। অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস জানিয়েছে যে, স্লাউই অপারেশন ওয়ার্প স্পিডে তার কাজের জন্য কোনও বেতন নেবে না।

ডাঃ স্লাউই কে?
১৯৫৯ সালে মরক্কোর আগাদিরে জন্মগ্রহণকারী ডঃ স্লাউই ১৭ বছর বয়সে তাঁর জন্মের দেশ ছেড়ে চলে যান। স্নাতক শেষ করার পরে, তিনি বেলজিয়ামের ইউনিভার্সিটি লিবার ডি ব্রুকসেলস থেকে আণবিক জীববিজ্ঞান এবং ইমিউনোলজিতে ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি হার্ভার্ড মেডিকেল স্কুল এবং বোস্টনের টুফ্টস বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল অফ মেডিসিনে স্নাতকোত্তর পড়াশোনা শেষ করেন। তিনি গ্ল্যাক্সো স্মিথক্লিন (জিএসকে) এর ভ্যাকসিন বিভাগের প্রধান ছিলেন এবং ৩০ বছর ধরে কাজ করছেন।

তিনি ইমিউনোলজিতে প্রায় শতাধিক বৈজ্ঞানিক গবেষণাপত্রের লেখক হিসাবে তালিকাভুক্ত হয়েছেন। প্রথম বিশ্বে, তিনি ২০১৫ সালে ম্যালেরিয়া ভ্যাকসিনের জন্য ইউরোপীয় অনুমোদন অর্জন করেছিলেন। গত সপ্তাহে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তাকে অপারেশন ওয়ার্প স্পিডের প্রধান হিসাবে নিয়োগ দেওয়ার সময় বায়োটেক সংস্থা মোদার্নার বোর্ডে থাকা স্লাউই পদত্যাগ করেছেন।

‘সেবা’ করার জন্য ‘মহান সম্মান’

স্লাউই বলেন, আমি খুব সম্প্রতি একটি করোনভাইরাস ভ্যাকসিনের সাথে ক্লিনিকাল ট্রায়াল থেকে প্রাথমিক তথ্য দেখেছি।

এই ডেটা আমাকে আরও আত্মবিশ্বাসি করে তুলেছে যে, আমরা ২০২০ সালের মধ্যে কয়েকশ মিলিয়ন ডোজ ভ্যাকসিন সরবরাহ করতে সক্ষম হব। গ্ল্যাক্সো স্মিথক্লিনে ২০১৫ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত গ্লোবাল ভ্যাকসিন ডেভলপমেন্ট প্রোগ্রামের নেতৃত্বে থাকার অভিজ্ঞতা স্লাউই উল্লেখ করেন।

মহামারী মোকাবেলায় ‘আমাদের দেশ ও বিশ্বের সেবা’ করার জন্য এটিকে ‘একটি বড় সম্মান’ হিসাবে এটিকে অভিহিত করেন স্লাউই।
তিনি বলেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তাদের বর্ণনা দিয়েছেন এবং আমি বিশ্বাস করি, তারা খুব বিশ্বাসযোগ্য। আমি এও বিশ্বাস করি যে, তারা অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং। তবে, আমি সত্যিই আত্মবিশ্বাসী। আমরা এই উদ্দেশ্য সফল করতে সক্ষম হব এবং এজন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করব।


💝সংবাদটি লাইক এবং শেয়ার করুন…

শেয়ার করুন !

Daily Vorer Teknaf

সুন্দর আগামী বিনিমার্ণে একটি অঙ্গীকারবদ্ধ সংবাদ মাধ্যম। দৈনিক ভোরের টেকনাফ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *