বাংলাদেশ সফর চূড়ান্ত করল পাকিস্তান

করোনার কারণে সব দেশের ক্রিকেটীয় সূচি এলোমেলো হয়ে পড়েছে। বোর্ডগুলো তাই ব্যস্ত স্থগিত হওয়া সিরিজগুলোর নতুন সূচি নির্ধারণ করেছে।

 

নতুন করে সূচি সংস্কার করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। সেই ধারাবাহিকতায় ২০২২ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত নিজেদের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের চূড়ান্ত সূচি প্রকাশ করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। সংস্কার করা সূচি অনুযায়ী আগামী বছর বাংলাদেশ সফরে আসবে পাকিস্তান জাতীয় দল।

পিসিবি এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, পরবর্তী ২৪ মাসে পাকিস্তান দুটি এশিয়া কাপ ও আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের একটি আসরে অংশ নেবে। এছাড়া আইসিসির ফিউচার ট্যুর প্ল্যান (এফটিপি) অনুযায়ী দক্ষিণ আফ্রিকা, জিম্বাবুয়ে, ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, নিউজিল্যান্ড, বাংলাদেশ, অস্ট্রেলিয়া ও শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে দশটি দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলবে।

এর মধ্যে বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজে স্বাগতিক দলের ভূমিকায় থাকবে বাংলাদেশ। নভেম্বরে বাংলাদেশে এসে সফরকারীরা খেলবে দুটি টেস্ট ও তিনটি টি-টোয়েন্টি। এফটিপি মেনেই এই সূচি সাজানো হয়েছে। পাকিস্তান সফরে অনীহা থাকায় বিগত বছরগুলোতে বাংলাদেশ সফরে অনাগ্রহী ছিল পাকিস্তান। তবে এ বছর বাংলাদেশ দল পাকিস্তান সফরে যাওয়ায় দুই বোর্ডের সম্পর্কের শীতলতা দূর হয়েছে।

বাংলাদেশ সফরে আসার আগে পাকিস্তান ব্যস্ত থাকবে তাদের আন্তর্জাতিক সূচি নিয়ে। জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে হোম সিরিজের পর এপ্রিলে যাবে জিম্বাবুয়েতে। জুনে পাকিস্তানের ইংল্যান্ড সফর। সেপ্টেম্বর ও অক্টোবরে ঘরের মাঠে খেলবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। এরপরই ভারতে বসবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর। বিশ্বকাপ শেষে পাকিস্তান জাতীয় দল আসবে বাংলাদেশ সফরে। টাইগারদের বিপক্ষে দুটি টেস্টের পাশাপাশি তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলবে দুই ফরম্যাটে দুটি বিশ্বকাপজয়ী এই দলটি।

তার আগে এই বছরের বাকি সময়টাতেও ব্যস্ত সময় কাটাবেন আজহার আলী, বাবর আজমরা। চলতি মাসেই পাকিস্তানিরা জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজের লড়াই শুরু করবে। তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি এই সিরিজ শেষে নভেম্বর ও ডিসেম্বরে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে দুটি টেস্ট ও তিনটি টি-টোয়েন্ট খেলবে পাকিস্তান।

শেয়ার করুন !

Daily Vorer Teknaf

সুন্দর আগামী বিনিমার্ণ বাস্তবায়নে এটি একটি অঙ্গীকারবদ্ধ অনলাইন সংবাদ মাধ্যম। 'দৈনিক ভোরের টেকনাফ' সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য প্রিয় পাঠকদের প্রতি অনুরোধ করা হল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *