সাইফুল সন্ত্রাসী না, সে একজন ছাত্র -চেয়ারম্যান রাশেদ

নিজস্ব প্রতিবেদক::

টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুড়া ২৭নং রোহিঙ্গা শিবির সিআইসি অফিসে কর্মরত সদস্যদের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ এনে এপিবিএন সদস্যরা একজন স্থানীয় কলেজ পড়ুয়া ছাত্রকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তারের পর সাইফুল নামের এই ছাত্রকে সন্ত্রাসীর ট্যাগ লাগিয়ে প্রতিপক্ষ উদ্দেশ্য হাসিলের পায়তারা চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয় সাধারণ লোকজন, পড়ুয়া শিক্ষার্থীবৃন্দ। মূলত সাইফুল একজন, হ্নীলা মঈনুদ্দিন মেমোরিয়াল কলেজের এইচএসসি ১ম বর্ষের ছাত্র হিসেবে জানা যায়।

এই গ্রেপ্তারে ফুঁসে ওঠেছে স্থানীয় জনপথ, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ২৭ নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সিআইসির বিরুদ্ধে।

স্থানীয় লোকজন, সহপাঠী ও পরিবারের ভাষ্য, দীর্ঘদিন ধরে নিজের পৈতৃক সম্পত্তির বিরোধ চলছিল। রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ২৭নং সিআইসি’র নির্দেশে যখন সাইফুলদের পৈতৃক সম্পত্তি দখল করে তখন পৈতৃক সম্পত্তি রক্ষায় অধিকার আদায়ের জন্য ছাত্রটি প্রতিবাদ করেছিল।

এই গ্রেপ্তারে স্থানীয় ২নং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদ মোহাম্মদ আলী বলেন,
‘সাইফুল সন্ত্রাসী না। সে আমার ইউনিয়নে ৯ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা ও কলেজে এইচএসসি তে অধ্যায়নরত নিয়মিত ছাত্র।পৈত্রিক সম্পত্তি নিয়ে দীর্ঘ দিনের বিরোধকে পুঁজি আজ তাকে সন্ত্রাসী বানানো হল। আমি ঊর্ধ্বতন কতৃপক্ষকে বারবার অনুরোধ করছি তার প্রতি সদয় হবার জন্য কিন্তু তা করলো না। আমি আবারো বলছি সাইফুল সন্ত্রাসী না,আজকের এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই’।

তবে আর্মড পুলিশ সূত্রে জানা জানা যায়, গ্রেপ্তারকৃত ব্যাক্তি ২৭নং রোহিঙ্গা শিবিরে কর্মরত সিআইসি’র কার্যালয়ে ঘেরাবেড়া ভাংচুর ও আচরণ বিধি লঙ্ঘন করেছে। সরকারি কাজে বাধা প্রদান ও প্রাণ নাশের হুমকি আরোপ করেছে। তাই সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করে ধৃতকে টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

🖊️সংবাদটি লাইক এবং শেয়ার করুন। 

শেয়ার করুন !

Daily Vorer Teknaf

সুন্দর আগামী বাস্তবায়নে এটি একটি অঙ্গীকারবদ্ধ অনলাইন সংবাদ মাধ্যম। 'দৈনিক ভোরের টেকনাফ' সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো মন্তব্য না করার জন্য প্রিয় পাঠকদের প্রতি অনুরোধ করা হল। ধন্যবাদ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *